Home/Shop/Cooking/Tajpata (তেজপাতা) (50 gm)

Tajpata (তেজপাতা) (50 gm)

৳ 50

ঔষুধী গুনের দিক থেকে তেজপাতাকে মোটেও খাটো করে দেখার অবকাশ নেই। ডক্তারদের পরিভাষায় ডায়বেটিকস রোগের জন্য তেজপাতা একটি মহাঔষধ। এমনকি ডায়বেটিকস প্রতিরোধেও এটি আপনাকে সাহায্য করতে পারে। ঠাণ্ডা-কাশি সারাতে তেজপাতা ফুটিয়ে পানি পান করলে বা বুকে সেক দিলে উপকার পাওয়া যায়। পেট ফোলা বা যেকোন পেটের গণ্ডগোল ভাল করতে তেজপাতা হতে পারে আপনার পরম বন্ধু। বাতের ব্যথা থেকে মাথা ব্যথা, তেজপাতা যেন উপযুক্ত ব্যাথানাশক, প্রাচীন গ্রন্থগুলো প্রমাণ করে যে তেজপাতার তেল সেই পাচীন সময় থেকেই ব্যথায় মানুষকে আরাম দিয়ে চলেছে। রূপচর্চার দিক থেকেও তেজপাতা পিছিয়ে নেই মোটেও। সামান্য তেজপাতা আপনার রিংকেলস বা ব্রণের সমস্যায় দিতে পারে উপযুক্ত সমাধান। চুল পড়া বা খুশকির সমস্যা আথবা হোক উকুনের জ্বালাতন সব ক্ষেত্রেই আপনার অতি পরিচিত তেজপাতায় দেবে সমাধান মিলিয়ে। পোকামাকড়ের হামলায়  ক্ষতির পরিমান কমাতে এবং তাদের হাত থেকে বাঁচাতে বেছে নিতে পারেন তেজপাতা পেস্ট বা তেজপাতার তেল। যদি দাঁত হলুদ সমস্যায় ভোগেন তবে পেস্টের সাথে সামান্য তেজপাতা গুঁড়া ব্যবহার করুণ, পেয়ে যাবেন আপনার সমস্যার সমাধান।

এতদিন হাতের কাছে পড়ে থাকা তেজপাতায় যে আপনার নিত্য সমস্যার সমাধান দিতে পারে তা হয়ত আগে আপনার জানা ছিল না। কিন্তু, এখন থেকে তেজপাতার গুনকে আর হেলাফেলা নয়, প্রতিদিনের রান্নায় আর নিত্য সমস্যা প্রতিরোধে বেছে নিন এই অসাধারণ মশলাটিকে আর থাকুন সুস্থ, হয়ে উঠুন প্রাণবন্ত।

SKU: TA001 Category:

Description

যারা মোটামুটি রান্নাবান্নার সাথে পরিচিত তারা তেজপাতার নাম শোনেননি এমনটা অসম্ভব। লম্বাটে পাতা বিশেষ এই মশলাটি আসলে একটি উদ্ভিদ থেকে পাওয়া যায় যা খাবারে গন্ধ এবং স্বাদ বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। তেজপাতার বৈজ্ঞানিক নাম Cinnamomum tamala যা প্রায় পৃথিবীর সকল দেশ এবং আবহাওয়াতে উৎপাদন করা সম্ভব। এই পাতা শুঁকনো অবস্থায় ব্যবহার করা হয় বা গুঁড়া করে পরবর্তী ব্যবসারের জন্য সংগ্রহ করা যায়। এর ব্যবহারে রান্না হয় আরো বেশি সুস্বাদু এবং খাবারে আসে এক আশ্চর্য সুঘ্রাণ।

বিভিন্ন খাবারে তেজপাতা ব্যবহার আমাদের দেশ ছাড়াও ভারত, নেপাল, ইন্দোনেশিয়া, ফিলিপাইন, পাকিস্থান, ভূটান ইত্যাদি দেশগুলোতে ব্যপকহারে হয়ে থাকে। আপনি যদি ভাবেন খাবারে এর প্রয়োগ কেন তবে বিরিয়ানী, পোলাও, সেমাই বা মিষ্টজাতীয় খাবারগুলো তেজপাতা ছাড়া রান্না করে দেখতে পারেন, নিজেই তখন আন্দাজ করতে পারবেন রান্নায় তেজপাতার প্রয়োজনীতা। রোস্ট বা গরুর কালা ভূনা অথবা আপনার প্রিয় মিষ্টান্ন পায়েস এই সবই যেন পরিপূর্ণতা পায় না তেজপাতার ছোঁয়া ছাড়া। মোঘলাই খাবার মানেই ছিল সুগন্ধ এবং সুস্বাদের মিশ্রণ আর এই সুগন্ধের জন্য প্রায় প্রতিটি খাবারেই দেওয়া হত তেজপাতা। তাই কারো বুঝতেই অসুবিধা হয় না যে সেই সুদূর প্রাচীনকাল থেকেই রান্নায় তেজপাতা ব্যবহারের প্রচলন ছিল। আমাদের দেশে সিলেট জেলায় তেজপাতার চাষ লক্ষনীয় তবে সারা দেশেই অপরিকল্পিত ভাবে এর চাষ দেখা যায়। বিশেষ যত্ন ছাড়াও এই গাছ দ্রুত বেড়ে উঠতে পারে তাই এর চাষের খরচ সামান্য। অন্যান্য দেশে মিষ্টজাতীয় খাবার, স্টু, ফ্রায়েড রাইস বা দুধের তৈরী খাবারে দেখা মেলে এই মশলায় ব্যবহার।

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “Tajpata (তেজপাতা) (50 gm)”

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Go to Top