Description

মৌরি একটি সুগন্ধযুক্ত মশলা, এর ব্যবহারে খাবারের স্বাদে এবং গন্ধে আসে দারুণ পরিবর্তন। মৌরি মূলা জাতীয় একপ্রকার বহুবর্ষজীবী উদ্ভিদ যার হুলুদ ফুল থেকে মৌরি বীজ সংগ্রহ করা হয়। প্রাপ্ত বয়স্ক মৌরি ফুল থেকে বীজ সংগ্রহ করা হয় এবং পরবর্তীতে তা শুকিয়ে ব্যবহার উপযোগী করে তোলা হয়। ভূমধ্যসাগরীয় দ্বীপপুঞ্জে মৌরির আদি নিবাস, তবে বর্তমানে এটি সারা বিশ্বে সহজলভ্য এবং পরিচিত একটি মশলা। মসলাটি তার তীব্র সুগন্ধ এবং কিছুটা তিক্ত-মিষ্ট স্বাদের জন্য অধিক জনপ্রিয়। শুধু মশলা নয়, মৌরি কিন্তু হারবাল চিকিৎসায় বিভিন্ন কঠিন রোগ নিরাময়েও একটি কার্যকরী ঔষধ।

বিভিন্ন পদের মাছ রান্নায়, মাংসের পদের মধ্যে গরু, মুরগী, খাসি সব ধরনের মাংস রান্নাতেই মৌরি ব্যবহার হয়ে থাকে। গরম মশলা বা পাঁচ ফোঁড়নের মিশ্রনে মৌরি পাওয়া যায়। যেকোন সবজি রান্নায় লোভনীয় সুগন্ধ যোগ করতে চাইলে অল্প একটু মৌরি বা পাঁচ ফোঁড়ন ব্যবহার করুণ, তবে অতিরিক্ত মাত্রায় ব্যবহার থেকে সাবধান থাকতে হবে। চটপটি তো আমাদের সাবার প্রিয়, এই চটপটিতে সামান্য মৌরি মেশান দেখুন চটপটির স্বাদ আর গন্ধ কেমন দারুণ পাল্টে যায়। রান্নায় যেকোন ঝাল আইটেমে আপনি এর প্রয়োগ করতে পারেন। শুধু আমাদের দেশে নয় বিদেশের রান্নাবান্নাতেও মৌরি ব্যবহারের চল আছে। ইটালিয়ান পদগুলোতে সবসময় থাকে এই মসলাটি, এছাড়াও ভারত, পাকিস্থান, নেপাল, আমেরিকা, আরবীয় দেশসমূহ প্রভৃতি দেশেগুলোতে মসলার আইটেমে দেখা মিলবে মৌরির। পিজ্জা সসের মত লোভনীয় খাবারটিও মৌরি ছাড়া সুগন্ধ ছড়ায় না, স্যুপ হোক বা সালাদ অথবা রাইস বা পাস্তা সব খাবারেই ব্যবহার হয় এই মসলাটি। প্রাচীন চীনের লোকেরা চিকিৎসা কাজেও মৌরিকে ব্যবহার করে থাকত।

Upo karita – মৌরির গুনের কোন শেষ নেই, যেকোন গুরুভোজের পর শুকনো মৌরি  আপনার পাকযন্ত্রের কার্যকারিতা ঠিক রাখবে, হজমশক্তি বৃদ্ধির কাজে একে বিশেষজ্ঞ বলা চলে। এতে রয়েছে ভিটামন সি, আইরন, ফ্লোরেন্ট, পটাশিয়াম এবং ফাইবার, যা এন্টিবেকটেরিয়া, এন্টিএজেনিং গুণসম্পন্ন। মৌরি রক্তে ক্লোলেস্ট্ররালের মাত্রা কমায় যা কিনা হার্টের সমস্যার প্রধান কারন, হার্ট ভাল রাখতে খাবারের শেষে চিবিয়ে বা চা করে আপনি এটা খেতে পারেন। মুখের ব্যাকটেরিয়াকে ধ্বংস করে নিঃশ্বাসকে সতেজ করে মৌরি, তাই মাউথ ফ্রেশনারের মধ্যেও এই উপাদানটি ব্যবহার করা হয়। বাড়তি ওজন ঝড়িয়ে ফেলতে যাদের বেগ পেতে হচ্ছে তাদের প্রতিদিন খাবারের তালিকায় মৌরি থাকলে ওজন কমানো নিয়ে আর ভাবনায় থাকতে হবে না। স্মৃতিশক্তি বর্ধনে এই মসলাটার রোজ ব্যবহার আপনাকে সহায়তা করবে, ভুলে যাওয়ার প্রবণতা কমাতে এটি সত্যি কার্যকরী। রোজকার জীবনের ক্লান্তি, অবসাদ, দুশ্চিন্তা কমিয়ে মানসিক প্রশান্তি পেতে আপনার ডাইট তালিকায় রাখতে পারেন এই মশলাটিকে। ক্যানসার প্রতিরোধক এবং নিরাময়ক হিসাবেও মৌরি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। খুশখুসে কাশি বা বুকে কফ জমে গেলে তার থেকে রেহাই পেতে পানিতে কিছু মৌরি ফুটিয়ে সেই পানি সেবন করতে পারেন। শুধু রোগ প্রতিরোধ নয় আপনার ত্বক ও চুলের সৌন্দর্য বর্ধনেও এই মশলাটি উপকারী। মুখের পিম্পল, মেছতা, রোদে পোড়া ভাব কমাতে এটি ব্যবহার করা হয়, মুখে বয়সের ছাপ দূর করতে বা মুখের গ্লো বৃদ্ধি করতে আপনার রান্না ঘরের এই মশলাটিই হতে পারে উপকারী বন্ধু। খুশকি সমস্যায় ভুগছেন? চুল রুক্ষ হয়ে যাচ্ছে বা চুলের আগা ফেটে যাচ্ছে? শ্যাম্পু করার পর মৌরি ফোটান পানি ঠাণ্ডা করে সেই পানি দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন উপকার পাবেন।

ছোট বীজ জাতীয় এই মসলাটি আপনার রান্না থেকে শুরু করে রূপচর্চা সবকিছুতেই আপনার উপকারী বন্ধুর মত কাজ করবে। সুস্থতা আর সৌন্দর্য ধরে রাখতে তাই রোজ খাবারের সাথে রাখুন মৌরি।