উলটচন্ডালের পরিচিতি ও ভেষজ গুণাবলি:

অগ্নিশিখা/ উলটচন্ডাল  লতানো উদ্ভিদ। ভূ-নিম্নস্থ কন্দ থেকে প্রতি বছর মে-জুন মাসে বায়বীয় কান্ড বের হয়ে বৃদ্ধি পেতে থাকে। পাতা সরল, প্রথমে একান্তর, পরবর্তীতে প্রতিমুখ এবং তিন পাতার আবর্তক। পাতার শিরা বিন্যাস সমান্তরাল, অগ্রভাগ আকর্ষিতে পরিবর্তিত। জুলাই-আগষ্ট মাসে ফুল হয়। ফুল একক, ছয় পাপড়ি, ছয় পুংকেশর ও তিন গর্ভকেশর বিশিষ্ট। পাপড়ি প্রথমে হালকা সবুজ, পরে পীত ও রক্তবর্ণ হয়। ফুটন্ত ফুলের পাপড়ি উর্ধমুখী। অক্টোবর-নভেম্বর মাসে ফল পাকে।

প্রচলিত নামঃ অগ্নিশিখা/ উলটচন্ডা

ইউনানী নামঃ ওলট চন্ডাল

আয়ুর্বেদিক নামঃ অগ্নিশিখা, লাঙ্গলী

ইংরেজি নামঃ Glory Lily, Superb Lily

বৈজ্ঞানিক নামঃ Gloriosa superba Linn.

পরিবারঃ Liliaceae

প্রাপ্তিস্থানঃ ঢাকা ও চট্রগ্রামের বনাঞ্চলে পাওয়া যায়।

রোপনের সময় ও পদ্ধতিঃ কন্দ এপ্রিল মাসে উঁচু ভূমিতে লাগাতে হয়। আবার ফল থেকে বীজ সংগ্রহ করে মার্চ-এপ্রিল মাসে বীজ বুনতে হয়। ২০-২৫ দিনের মধ্যেই বীজ থেকে চারা গজায়। উষ্ণ ও আর্দ্র জলবায়ুতে এটি ভাল জন্মে।

রাসায়নিক উপাদানঃ কন্দ, ফুল ও বীজে কলচিসিন ও ফিনোলিক দ্রব্য, লুটিওলিন ও বিটা-সাইটোস্টেরল বিদ্যমান।

ব্যবহার্য অংশঃ কন্দ ও পাতা।

গুনাগুনঃ কটু, তিক্ত, উষ্ণবীর্য, কফ-বাত, কৃমি, শোথ ও ব্রণ নাশক। বিরেচক,বমন কারক ও বলকারক।

বিশেষ কার্যকারিতাঃ উকুন নাশে, বাতের ব্যথায় ও গর্ভপাতে।

রোগ অনুযায়ী ব্যবহার পদ্ধতিঃ

রোগেরনামঃ মাথার উকুন নাশে
ব্যবহার্য অংশঃ পাতার রস
মাত্রাঃ পরিমানমত
ব্যবহার পদ্ধতিঃ পাতার রস ও নারিকেল তেল সমপরিমাণ মাথায় মাখতে হবে।

রোগেরনামঃ বাতের ব্যাথায়
ব্যবহার্য অংশঃ কন্দ
মাত্রাঃ পরিমানমত
ব্যবহার পদ্ধতিঃ তিনভাগ কন্দ এবং একভাগ গোলমরিচ বেটে মন্ড করতে হবে। ঐ মন্ড সামান্য গরম করে ব্যাথাযুক্ত স্থানে প্রলেপ দিতে হবে।

সতর্কতাঃ কন্দ বিষাক্ত। চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া সেবন করা ঠিক নয়।